ভয় ভয়ঙ্কর, লেখক : হিমাদ্রিকিশোর দাশগুপ্ত #প্রতিক্রিয়া

প্রচ্ছদ দেখে অনেকেই হয়তো প্রথাগত মামদো ভূতের গল্প বলে ভুল করবেন কিন্তু বইটি একেবারেই তা নয় ; ইতিহাস, পুরাণ ও নানাবিধ রসের মিশেলে মোড়া কিছু অন্যরকম অলৌকিক কাহিনীর সম্ভার এই বই।
এতে আছে মোট ১০টি গল্প, ২টি বড়ো গল্প ও ৩টি উপন্যাস।
গল্পের মধ্যে আমার কাছে অবশ্যই এগিয়ে ‘নিভভাঙা কলম’, ‘কফিন’, ‘আঁকার খাতা’, ‘মায়া মারীচ’ ও ‘দেবতার চাবি’ তাদের ঐতিহাসিক, পৌরাণিক এবং বাস্তবিক ভয়ঙ্কর পরিণতির জন্য। ‘নেকড়ের নিমন্ত্রণ’ গল্পটি অলৌকিকের পর্যা থেকে বাদ দেওয়া যেতে পারে কিন্তু গোটা গল্পে রোমাঞ্চের সত্যিই ত্রুটি রাখেননি সাহিত্যিক।
‘দুর্ঘটনার পর’ এবং ‘পুনর্জন্ম’ গল্প দুটি মন্দ নয় তবে দুটির মধ্যেই আছে বেশ কিছু সুক্ষ মিল ; ঠিক একই মিল বজায় থেকেছে ‘মসমাই অর্কিড’ এবং ‘র‍্যামেসিস রা এর রক্তধারা’ গল্পতেও। তবে সকলের মধ্যে খানিক হতাশ করেছে ‘হিরোহিতোর গবেষণা’ যা কল্পবিজ্ঞানের আশ্রয় নিলেও সেভাবে মনে জায়গা করে নিতে পারলোনা।
বড়ো গল্প ও উপন্যাসের মধ্যে ‘খলবলি’ এবং ‘ডাকাতের চেয়েও ভয়ঙ্কর’ চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে শত রোমাঞ্চ সত্ত্বেও এক আবেগপূর্ণ সমাপনের জন্য ; নদীরও যে প্রাণ থাকে তা বেশ সুন্দরভাবে উপলব্ধি করায় খলবলি।
দুই পর্বে উপন্যাস ‘মানুষ-কুমির’ এবং ‘বাঘের থাবা কুমিরের দাঁত’ এর মধ্যে প্রথম পর্বটিই বেশী করে রোমাঞ্চের সৃষ্টি করে কিন্তু রুদ্ধশ্বাস কাহিনী হলেও গল্পের নামটা একটু বদলানো যেতে পারতো তাহলে প্রফেসরের আসল গবেষণাটা যবনিকা পতনের আগেই ধরা পড়ে যেতনা ; কাজেই শীর্ষকের জন্য গল্পটি একটু বেশী প্রেডিক্টেবল হয়ে গেছে।
সবশেষে একটা কথাই বলার, ইতিহাসকে এই যুগে ফের এক নতুন রূপ দিয়ে তার মধ্যে থ্রিলের রস মিশিয়ে এক অভিনবত্ব সৃষ্টি করেছেন সাহিত্যিক এবং যেকোনো রোমাঞ্চ পিপাসুদের কাছে এই বইটি অবশ্যই সানন্দে গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠবে।

Credits – Sanket Mitra

 

Share and Enjoy !

0Shares
0 0
Subscribe
Notify of
guest
3 Comments
Oldest
Newest Most Voted
Inline Feedbacks
View all comments
Sanket Mitra
Sanket Mitra
6 months ago

Thanks a lot for sharing my review. It’s my pleasure 😊😊

AffiliateLabz
6 months ago

Great content! Super high-quality! Keep it up! 🙂

0Shares
0
3
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x